রাত ১১:৩৮, মঙ্গলবার, ৪ঠা আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৮ই জুন, ২০১৯ ইং, ১৫ই শাওয়াল, ১৪৪০ হিজরী

ব্যাংকিং খাতের এক-চতুর্থাংশ শেয়ার ইসলামিক ব্যাংকগুলোর

18

ঢাকা,  দেশের গোটা ব্যাংকিং খাতের প্রায় ২৫ শতাংশ শেয়ার রয়েছে ইসলামিক ব্যাংকগুলোর কাছে। ২০১৯ সালের জানুয়ারি-মার্চ প্রান্তিকে এই চিত্র উঠে এসেছে।
বাংলাদেশ ব্যাংকের (বিবি) সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী একথা জানা গেছে।
বাংলাদেশ ব্যাংকের একজন জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা আজ বাসসকে বলেন, ‘ইসলামিক ব্যাংকিং শিল্প গোটা ব্যাংকিং খাতের সঞ্চয় ও বিনিয়োগের প্রায় এক চতুর্থাংশ নিয়ন্ত্রণ করছে। বছরের প্রথম প্রান্তিক শেষে পর্যালোচনায় এ তথ্য উঠে এসেছে। দেশে সঞ্চয় বৃদ্ধি ও অর্থনীতির বিভিন্ন খাতে অর্থায়নে ব্যাংকগুলো গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে।’
তিনি আরো বলেন, ইসলামিক ব্যাংকিং শিল্প প্রাধান্য বিস্তার করে আছে এবং সম্পদ, জমাকৃত অর্থ, বিনিয়োগ ও অ্যাকাউন্ট হোল্ডারদের সংখ্যা ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে।
কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী ২০১৯ সালের জানুয়ারি-মার্চ প্রান্তিক শেষে ইসলামিক ব্যাংকিং খাতের মোট বিনিয়োগের পরিমাণ ২ লাখ ৩৭ হাজার ২৭৯.২০ কোটি টাকায় দাঁড়িয়েছে।
এটি এর আগের প্রান্তিকের চেয়ে ২.৭৬ শতাংশ বা ৬ হাজার ৩৭১.৯২ কোটি টাকা বেশি এবং গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ১৩.৪৫ শতাংশ বা ২৮ হাজার ১৩০.৭০ কোটি টাকা বেশি।
জানুয়ারি-মার্চ প্রান্তিকে এই ব্যাংকিং শিল্পে মোট জমাকৃত অর্থের পরিমাণ ২ লাখ ৪২ হাজার ১১৮.৮০ কোটিতে দাঁড়িয়েছে।
গত বছরের এই প্রান্তিকের তুলনায় তা ৪ হাজার ৭৫১.৮৯ কোটি টাকা বা ২ শতাংশ বেশি এবং গত বছরের এই সময়ের তুলনায় ২৬ হাজার ৫৬০.৮৭ কোটি টাকা বা ১২.৩২ শতাংশ বেশি।
এই প্রান্তিকে ইনভেস্টমেন্ট ডিপোজিট রেশিও ০.৯৮ এ দাঁড়িয়েছে। ২০১৮ সালের ডিসেম্বরের শেষ নাগাদ তা ছিল ০.৯৭।
২০১৯ সালের জানুয়ারি-মার্চ প্রান্তিকের শেষ নাগাদ ইসলামিক ব্যাংকিং খাতে মোট রেমিটেন্সের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৮ হাজার ৩৩৭.৭৫ কোটি টাকা।
প্রান্তিক প্রতিবেদনে বিবি জানিয়েছে, রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট এ ইসলামিক ব্যাংকগুলোর আরো বেশি মনযোগী হওয়া উচিত।   (বাসস) :



sky television /স্কাই টিভি


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *