সকাল ৯:১৫, রবিবার, ২রা পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ১৬ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং, ৯ই রবিউস-সানি, ১৪৪০ হিজরী

কলাপাড়ায় স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে পানির উচ্চতা বৃদ্ধি ॥ ভোগান্তিতে সাধারন মানুষ ॥

43

 

, কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি ঃ কলাপাড়ায় স¦াভাবিক জোয়ারের চেয়ে পানির উচ্চতা বৃদ্ধি পেয়েছে। এ কারনে বেরিবাঁধের বাইরে ঘর-বাড়ি, আন্ধারমানিক তীরবর্তী এলাকা প্লাবিত ও কুয়াকাটা সৈকতে ভাঙন দেখা দিয়েছে। ফলে ভোগান্তিতে পড়েছে নি¤œাঞ্চলের সাধারন মানুষ ।
সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট লঘুচাপ ও অমাস্যার প্রভাবে সাগর উত্তাল থাকায় নদ-নদীর পানির উচ্চতা ৩ থেকে ৪ফুট বৃদ্ধি পেয়েছে। এতে গত কয়েকদিন ধরে দুই দফা জোয়ারে উপজেলার লালুয়া, চম্পাপুর, ধানখালী ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি গ্রাম ও মহিপুরের নিজামপুর প্লাবিত হয়েছে। এছাড়া জোয়ারের তান্ডবে কুয়াকাটার দীর্ঘ সৈকতের প্রায় ২০ ফুট প্রস্থ সাগরে বিলীন হয়ে গেছে। উপড়ে গেছে শত শত গাছপালা। এদিকে কলাপাড়া পৌরশহরের বেড়িবাঁধের বাইরের ঘর-বাড়ি ও দোকানপাঠ প্লাবিত হয়েছে। ফলে বেড়িবাঁধের বাইরের ব্যবসায়ীরা পড়েছেন চরম বিপাকে। দূর্ভোগ পোহাচ্ছেন সাধারন মানুষ।
কলাপাড়ার মাছ ব্যবসায়ী রহমান মিয়া জানান, মাছ বাজার তিন ঘন্টা ধরে তলিয়ে থাকায় আমাদের বেচা বিক্রিতে সমস্যা হচ্ছে। লঞ্চঘাটের আরেক ব্যবসায়ী পরান বাবু জানান, জোয়ারের পানিতে রাস্তা ঘাট তলিয়ে থাকায় আমাদের বেচা-বিক্রি বন্ধ। নিজামপুরের বাসিন্দা রহমান মিয়া জানান, জোয়ারের পানিতে আমাদের ঘর বাড়ি তলিয়ে গেছে। চম্পাপুরের বাসিন্দা কালাম জানান, দুই দফা জোয়ারের পানি প্রবেশ করে গ্রামের পর প্রাম প্লাবিত হচ্ছে।
কলাপাড়া পানি উন্নয়ন বোডের্র নির্বাহী প্রকৌশলী আবুল খায়ের সাংবাুদকদের জানান, কুয়াকাটা সৈকত রক্ষায় জরূরি অস্থায়ী ৮শ মিটার এলাকায় জিও ব্যাগ ফেলার কাজ শুরু হয়েছে। এছাড়া নিজামপুরে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান দ্বারা বেড়িবাঁধের কাজ চলমান।

 



sky television /স্কাই টিভি


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *